ঢাকা, রবিবার, ২২শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ৮ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ২১শে শাওয়াল, ১৪৪৩ হিজরি, দুপুর ২:২৬
বাংলা বাংলা English English
শিরোনাম:

রবিবার, ২২শে মে, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ৮ই জ্যৈষ্ঠ, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

রাত পোহালেই মাগুরা জেলা আ.লীগের সম্মেলন


মাগুরা জেলা আওয়ামী লীগের ত্রি-বার্ষিক সম্মেলন শনিবার (১৪ মে) অনুষ্ঠিত হবে। সম্মেলনকে কেন্দ্র করে সংগঠনের নেতাকর্মীদের মধ্যে সাজ সাজ রব ও ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনা দেখা দিয়েছে। সম্মেলন সফল করতে জেলা আওয়ামী লীগসহ প্রতিটি অঙ্গ সংগঠন ইতোমধ্যে জেলা থেকে শুরু করে প্রত্যন্ত অঞ্চলে গণসংযোগ ও সভা সমাবেশসহ সব প্রস্তুতি শেষ করেছে। সম্মেলন ঘিরে দলীয় নেতাকর্মী ও সমর্থকদের মধ্যে চাঞ্চল্য দেখা গেছে। এমনকি দীর্ঘদিন দলের কর্মকাণ্ড থেকে দূরে থাকা নেতাকর্মীরাও অনেকটা সরব।

শনিবার সকাল ১০ টায় স্থানীয় উৎসাহ ময়দানে সম্মেলনের উদ্বোধন করবেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক সড়ক পরিবহন ও সেতু মন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এমপি। সভাপতিত্ব করবেন মাগুরা জেলা আওয়ামী লীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি আ ফ ম আব্দুল ফাত্তাহ্। প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য কাজী জাফরুল্লাহ।

 

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থাকবেন প্রেসিডিয়াম সদস্য আব্দুর রহমান, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাসিম, মাগুরা-১ আসনের সংসদ সদস্য মো.সাইফ্জ্জুামান শিখর, মাগুরা-২ আসনের সংসদ সদস্য ড. বীরেন শিকদারসহ কেন্দ্রীয় নেতারা।

প্রধান বক্তা হিসেবে বক্তব্য রাখবেন দলের কেন্দ্রীয় সাংগঠনিক সম্পাদক বি এম মোজ্জাম্মেল হোসেন। পরে দ্বিতীয় অধিবেশন অনুষ্ঠিত হবে শেখ কামাল ইনডোর স্টেডিয়ামে।

দলীয় সূত্রে জানা গেছে, জেলা আওয়ামী লীগের সবশেষ সম্মেলন হয়েছে ২০১৫ সালের ৮ মার্চ। এ সম্মেলনে জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক প্রফেসর ডা. সিরাজুল আকবর সভাপতি ও পঙ্কজ কুমার কুণ্ডুকে সাধারণ সম্পাদক মনোনীত হন। ওই বছরের ৯ মার্চ নবনির্বাচিত সভাপতি প্রফেসর ডা. সিরাজুল আকবর মৃত্যুবরণ করেন। পরবর্তীতে জেলা আওয়ামী লীগের জ্যেষ্ঠ নেতা বীর মুক্তিযোদ্ধা তানজেল হোসেন খানকে কেন্দ্র থেকে সভাপতি নির্বাচিত করা হয়। ২০২০ সালের ২০ জানুয়ারি তানজেল হোসেন খানের মৃত্যু হলে সভাপতি পদটি আবারও শূন্য হয়।

পরবর্তীতে জ্যেষ্ঠ সহ-সভাপতি আ ফ ম আব্দুল ফাত্তাহকে ভারপ্রাপ্ত সভাপতির দায়িত্ব দেওয়া হয়। সেই থেকে জেলা আওয়ামী লীগের নেতৃত্ব দিয়ে আসছেন আব্দুল ফাত্তাহ্ ও পঙ্কজ কুণ্ডু। এ বারের সম্মেলনে বর্তমান কমিটির সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদকের পাশাপাশি অনেক নতুন মুখ কমিটিতে আসতে পারে বলে দলীয় নেতাকর্মীরা ধারণা করছে। তবে প্রবীণদের মধ্যে কাউকে সভাপতির দায়িত্ব দিয়ে সাধারণ সম্পাদক পদে মেধা ও রাজনৈতিক যোগ্যতার ভিত্তিতে দায়িত্ব দেওয়া হতে পারে এমন কথাও শোনা যাচ্ছে।

জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও জেলা পরিষদ প্রশাসক পংকজ কুণ্ডু বলেন, সুষ্ঠু ও সুন্দরভাবে সম্মেলন সম্পন্ন করার জন্য দলের পক্ষ থেকে সব প্রকার প্রস্তুতি সম্পন্ন করা হয়েছে। সম্মেলনকে কেন্দ্র করে দলের নেতাকর্মীদের মাঝে ব্যাপক প্রাণচাঞ্চল্য সৃষ্টি হয়েছে।

মাগুরা-১ আসনের সংসদ সদস্য সাইফুজ্জামান শিখর বলেন, ‘আমি মনে করি আগামী ১৪ তারিখের সম্মেলন দৃষ্টান্তমূলক সম্মেলন হিসেবে অনুষ্ঠিত হবে। একটি সফল সম্মেলনের মধ্যদিয়ে জননেত্রী শেখ হাসিনার সোনার বাংলা গড়ার কারিগর বের হয়ে আসবে। আগামী সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে বিরোধী দলের আন্দোলন সংগ্রামকে মোকাবিলা করে অতীতের নেতৃত্বের মতো সমগ্র জেলার নেতাকর্মীদের সঙ্গে নিয়ে দুটি নির্বাচনী আসন ধরে রাখতে পারবে। এছাড়া দলকে আরও গতিশীল করে তুলবে, এমন নেতৃত্ব আসবে বলে আমি মনে করি’।

মাগুরা-২ আসনের সংসদ সদস্য ড. শ্রী বীরেন শিকদার বলেন, ‘জননেত্রী শেখ হাসিনা মাগুরাকে অনেক ভালোবাসেন। তিনি ক্ষমতায় আসার পর অবহেলিত মাগুরাকে সর্বোচ্চ উন্নয়নের দোরগোড়ায় পৌঁছে নিয়েছেন। মাগুরায় মেডিকেল কলেজ, রেল লাইন, আইটি পার্ক, আন্তর্জাতিক মানের ষ্টেডিয়াম, হাইওয়েতে ফোর লেনসহ বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কাজ চলছে। মাগুরা রাজনৈতিক সামাজিক সব কিছুই প্রিয় নেত্রীর নখদর্পণে রয়েছে। আমি বিশ্বাস করি নেত্রী যাদের ওপর নেতৃত্ব দেবেন তারা অবশ্যই আগামী নির্বাচনকে সামনে রেখে দলকে আরও শক্তিশালী করবে।

সব খবর