ঢাকা, বুধবার, ৬ই জুলাই, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ২২শে আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৭ই জিলহজ, ১৪৪৩ হিজরি, রাত ৩:০৯
বাংলা বাংলা English English

বুধবার, ৬ই জুলাই, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ২২শে আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

আমতলীতে আউশ ধান চাষে ব্যস্ত কৃষকরা
ধানের দাম ভালো থাকায় আবাদে ঝুঁকছে কৃষকরা


বোরো ধান কর্তন শেষ হতে না হতেই আমতলী উপজেলার কৃষকরা আউশ ধান চাষে ব্যস্ত সময় পার করছেন। বাজারে ধানের দাম ভালো থাকায় কৃষকরা আউশ ধান চাষে অধিক আগ্রহী হয়েছেন।
উপজেলা কৃষি অফিস সুত্রে জানাগেছে, এ বছর আমতলীতে ৯ হাজার হেক্টর জমিতে আউশ ধান চাষের লক্ষমাত্রা ধরা হয়েছে। বাজারে ধানের দাম ভালো থাকায় কৃষকরা আউশ চাষে বেশি ঝুঁকছেন। গত বছরের তুলনায় এ বছর জমিতে আউশ ধান বেশী চাষ হবে বলে আশা করছেন উপজেলা কৃষি অফিসার সিএম রেজাউল করিম। উপজেলা কৃষি অফিস আউশ ধান চাষে কৃষকদের আকৃষ্ট করতে ৩ হাজার ৫’শ কৃষকের মাঝে সার ও বীজ বিতরন করা হয়েছে। বীজ ও সার পেয়ে কৃষকরা আরো উৎসাহী হয়েছেন বলে জানান সংশ্লিষ্টরা। কৃষকরা বলেন, গত বছরের তুলনায় এ বছর কৃষকরা বেশী আউশ ধানের চাষ করছেন। আউশ ধান চাষের উপযুক্ত সময় বৈশাখ মাস থেকে শুরু করে ভাদ্র মাসের মাঝামাঝি সময়। ৫ মাসের আয়ুস্কালে কৃষকরা ধানের ফলন পেয়ে থাকেন। বর্তমানে আমতলী উপজেলার আউশ ধান চাষে কৃষকরা ব্যস্ত সময় পার করছেন।
মঙ্গলবার সরেজমিনে ঘুরে দেখাগেছে, উপজেলার গুলিশাখালী, আঠারোগাছিয়া, কুকুয়া, হলদিয়া, চাওড়া, আমতলী সদর, আড়পাঙ্গাশিয়া ও আমতলী পৌরসভার কৃষকরা আউশ ধান আবাদে ব্যস্ত সময় পার করছেন। তারা জমি প্রস্তুত করন ও বীজ রোপনে ব্যস্ত সময় পার করেছেন। একটু ফুরসত নেই কৃষকের মাঝে।
পশ্চিম সোনাখালী গ্রামের কৃষক সোহেল রানা, বাহাউদ্দিন ও শাহীন মৃধা বলেন, আউশ ধানের চারা রোপন করতে জমি প্রস্তুত শেষ করেছি। দ্রুত রোপন শুরু করবো।
মানিকঝুঁড়ি গ্রামের আদর্শ কৃষক আবদুল মান্নান হাওলাদার বলেন, ৫ একর জমিতে আউশ ধানের চারা রোপন করেছি। উপজেলা কৃষি অফিস থেকে আউশ ধান চাষ করতে সার ও বীজ পেয়েছি।
চাওড়া কাউনিয়া গ্রামের কৃষক নজরুল ইসলাম বলেন, এক একর জমিতে আউশ ধানের চারা রোপন করেছি।
আমতলী উপজেলা কৃষি অফিসার সিএম রেজাউল করিম বলেন, ৯ হাজার হেক্টর জমিতে আউশ ধান চাষের লক্ষমাত্রা ধরা হয়েছে। আশা করি ওই লক্ষমাত্রা ছাড়িয়ে যাবে। তিনি আরো বলেন, কৃষকদের আউশ ধান চাষে উৎসাহ দিতে ৩ হাজার ৫’শ কৃষককে সার ও বীজ দেয়া হয়েছে।

সব খবর