ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৭ই জুলাই, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ২৩শে আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৮ই জিলহজ, ১৪৪৩ হিজরি, বিকাল ৪:৫৭
বাংলা বাংলা English English

বৃহস্পতিবার, ৭ই জুলাই, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ২৩শে আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

এইচএসসি পরীক্ষা পেছানোর ইঙ্গিত


দেশে বন্যা পরিস্থিতি খারাপ হওয়ায় এ বছরের এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা স্থগিত করা হয়। তবে কবে শুরু হতে পারে তা এখনো নিশ্চিত নয় শিক্ষা মন্ত্রণালয়।

এদিকে এসএসসি পরীক্ষা পিছিয়ে যাওয়ায় আগামী আগস্ট মাস থেকে শুরু হতে যাওয়া এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষাও পিছিয়ে যেতে পারে বলে জানিয়েছেন ঢাকা মাধ্যমিক ও উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা বোর্ডের চেয়ারম্যান অধ্যাপক তপন কুমার সরকার।

তিনি বলেন, যদি আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি হয়, তাহলে আসন্ন ঈদুল আজহার আগেই এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা শুরু হতে পারে।

তপন কুমার শিক্ষা বোর্ডগুলোর চেয়ারম্যানদের সংগঠন আন্তঃশিক্ষা বোর্ড সমন্বয় কমিটির আহ্বায়কের দায়িত্ব পালন করছেন।

ঘোষিত সময়সূচি অনুযায়ী আজ রোববার (১৯ জুন) থেকে এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষা শুরু হওয়ার কথা ছিল। কিন্তু সিলেটসহ দেশের কয়েকটি এলাকায় বন্যা পরিস্থিতির অবনতি হওয়ায় তা স্থগিত করা হয়। এ কারণে ২০ লাখের বেশি পরীক্ষার্থী অনিশ্চয়তার মুখে পড়েছে। এ পরীক্ষা পিছিয়ে যাওয়ায় এইচএসসি পরীক্ষাও পিছিয়ে যাবে কি না, তা নিয়েও প্রশ্ন ওঠে।

এ নিয়ে অধ্যাপক তপন কুমার সরকার বলেন, বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি হলেই আবারও এসএসসি ও সমমানের পরীক্ষার নতুন সময়সূচি প্রকাশ করা হবে। আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে যদি বন্যা পরিস্থিতির উন্নতি হয়, তাহলে ঈদের আগেও শুরু করা যেতে পারে পরীক্ষা। বিষয়টি নির্ভর করছে বন্যা পরিস্থিতির ওপর।

এ বছরের এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষাও পিছিয়ে যেতে পারে কি না, সে প্রশ্নের জবাবে তপন কুমার সরকার বলেন, পেছাতেও পারে। কারণ, এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষার মধ্যে মোটামুটি দুই মাসের একটি বিরতির প্রয়োজন হয়। না হলে প্রয়োজনীয় প্রস্তুতি নেয়া কঠিন হয়ে পড়ে। সে ক্ষেত্রে এইচএসসি পরীক্ষা কিছু সময় পিছিয়ে যেতে পারে।

আগামী ২২ আগস্ট এইচএসসি ও সমমানের পরীক্ষা শুরুর কথা। ২০২৩ সালের এসএসসি পরীক্ষা ওই বছরের এপ্রিলে এবং এইচএসসি পরীক্ষা জুনে হতে পারে বলেও জানান তপন কুমার।

সব খবর