ঢাকা, বুধবার, ৬ই জুলাই, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ২২শে আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, ৭ই জিলহজ, ১৪৪৩ হিজরি, রাত ৪:১২
বাংলা বাংলা English English

বুধবার, ৬ই জুলাই, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ, ২২শে আষাঢ়, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ

আছিম থেকে বিদেশ নেয়ার কথা বলে ২৭ লক্ষ টাকা নিয়ে দালাল পলাতক


ময়মনসিংহের ফুলবাড়ীয়া উপজেলার ১২ নং আছিম ইউনিয়নের পাটুলী দাড়িয়ার পার থেকে বিদেশ পাঠানোর নাম করে বিদেশগামীদের নিকট থেকে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়ে গা ঢাকা দিয়েছে রিসালাত ইন্টারন্যাশাল নামে একটি তথাকথিত কোম্পানি।
প্রতারণার শিকার ব্যক্তিদের মাধ্যমে জানা যায়, রিসালাত ইন্টারন্যাশনাল কোম্পানির কর্ণধার মাোঃ শরিফুল ইসলাম বিদেশ পাঠানোর কথা বলে বেশ কিছু ব্যক্তিদের নিকট থেকে লাখ লাখ টাকা হাতিয়ে নিয়ে পালিয়ে গিয়েছে।
এ বিষয়ে ভুক্তভোগী ময়মনসিংহ জেলার ভালুকা থানার ভালুকা পৌর সভার ৬ নং ওয়ার্ডের মোহাম্মদ আফাজ উদ্দিনের ছেলে মোঃ সবুজ মিয়া বাদী হয়ে ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশ গুলশান থানায় মূল অভিযুক্ত শরীফুল ইসলামের নাম উল্লেখ করে একটি জিডি দায়ের করেন।
গুলশান থানা জিডি সূত্রে জানা যায় অভিযুক্ত শরিফুল বিদেশ পাঠানোর নাম করে সবুজের নিকট থেকে পাসপোর্ট ও নগদ এক লক্ষ দশ হাজার টাকা জমা রাখে।
গেল ১৬/০৬/২০২২ তারিখে সবুজকে শরিফুলের গুলশানের অফিস -১০৪, লেকভিউ রোড গুলশান -২ ঢাকা-১২১২ এই ঠিকানা থেকে ভিসা সংগ্রহ করতে বলে।
ঠিকানা অনুযায়ী সবুজ সেখানে গিয়ে কাউকে না পেয়ে অফিসের সিকিউরিটিকে জিজ্ঞেস করলে তিনি বলেন,শরিফুল অফিস পরিবর্তন করে অনেক আগেই এখান থেকে চলে গিয়েছে। শরিফুল সহ তার অন্যান্য স্টাফদের ব্যবহৃত মোবাইল নাম্বার ও বন্ধ রয়েছে।
সেখানে গিয়ে সবুজ জানতে পারে শুধু সে নয় এমন আরো অনেকের সাথেই শরিফুল প্রতারণা করেছে।
বিদেশগামীদের মধ্যে শরিফুলের প্রতারণার শিকার হয়েছেন ময়মনসিংহ জেলার ফুলবাড়িয়া থানার পাটুলী দাড়িয়ার পাড় এলাকার মোহাম্মদ আলী জিন্নাহর ছেলে নাসির উদ্দিন সজিব। কে বিদেশ পাঠানোর কথা বলে তার কাছ থেকে নেওয়া হয়েছে চার লক্ষ টাকা। একই এলাকার চান মিয়ার ছেলে মতিন মিয়ার কাছ থেকে নেওয়া হয়েছে চার লক্ষ টাকা। জমশেদ মিয়ার ছেলে জনী মিয়ার কাছ থেকে নেওয়া হয়েছে ৫ লক্ষ ৩০ হাজার টাকা এবং একই এলাকার মোঃ আবুল হোসেনের ছেলে মোঃ কামাল মিয়ার কাছ থেকে নেওয়া হয়েছে ৪ লাখ টাকা।
মোঃ চান মিয়া আকন্দ এর ছেলের কাছ থেকে নিয়ে ছে ৫ লক্ষ ২০ হাজার টাকা
সহায় সম্বল বিক্রি করে এ সকল সাধারণ মানুষ পরিবার পরিজন নিয়ে একটু ভালো থাকার আশায় বিদেশে পাড়ি দিতে চেয়েছিলেন।কিন্তু প্রতারক দালালের খপ্পরে পড়ে তাদের আর বিদেশ যাওয়া হয়ে উঠেনি।
সর্বশান্ত এ মানুষ গুলো সব হারিয়ে এখন দিশেহারা।তাদের মাঝে অনেকেই ঋণের টাকা পরিশোধ করতে না পেরে বাড়ি থেকে পালিয়ে বেড়াচ্ছেন।
প্রতারণার শিকার
এই সকল মানুষ গুলোর কাছে প্রতারণা চক্রটির অফিসের ঠিকানা রিসালাত ইন্টারন্যাশনাল লেভেল #এ/৪,বাড়ী #২০,১০৪ লেক ভিউ রোড,গুলশান _২ঢাকা, মোবাইল নাম্বার ০১৮৯২৩৮১৭৬৮,,০১৯৩০৬৫১৯২১,,০১৮২৫০১৫৭৭৮,,০১৯১৯৫৪২৮৮৩,,,
এবং ম্যানেজিং পার্টনার এর ছবি এবং আরো অন্যান্য আলামত রয়েছে ভুক্তভোগীর কাছে , এইসকল মানুষগুলোর সরকার ও প্রশাসনের নিকট একটাই দাবি অবিলম্বে তাদের সে টাকা ফেরত দেওয়ার ব্যবস্থা করা হোক এবং অভিযুক্ত শরিফুল কে ধরে আইনের আওতায় এনে বিচারের সম্মুখীন করা হোক।এমন বিচার করা হোক যাতে করে ভবিষ্যতে কেউ বিদেশে নেওয়ার নাম করে আর এ ধরনের প্রতারণা করতে না পারে।

সব খবর