ঢাকা, শনিবার, ১৩ই জুলাই, ২০২৪ খ্রিস্টাব্দ, ২৯শে আষাঢ়, ১৪৩১ বঙ্গাব্দ, ৭ই মহর্‌রম, ১৪৪৬ হিজরি, সকাল ৮:০৯
বাংলা বাংলা English English

ভারতীয় দলপতিকে বিসিসিআইয়ের তলব


ছবি- সংগৃহীত

বাংলাদেশের বিপক্ষে সিরিজ চলাকালীন আম্পায়ারের সঙ্গে অসাদাচরণ ও প্রতিপক্ষের খেলোয়াড়দের কটাক্ষ করায় আইসিসি থেকে দুই ম্যাচের নিষেধাজ্ঞা পেয়েছেন ভারত নারী ক্রিকেট দলের অধিনায়ক হারমানপ্রীত কৌর। শুরুতে ম্যাচ ফির ৭৫ শতাংশ জরিমানা করার পাশাপাশি চারটি ডেমেরিট পয়েন্ট তার নামের পাশে যোগ করা হলেও আইসিসি পরে তাকে ডেমেরিট পয়েন্টের কারণে নিষিদ্ধ করে দুই ম্যাচের জন্য।

হারমানপ্রীতের উদ্ধতপূর্ণ আচরণে সমালোচনার ঝড় বয়ে গেছে ভারতের ক্রিকেটাঙ্গনেও। ভারতীয় দলপতির কঠোর সমালোচনা করেছেন তারই দেশের সাবেক ক্রিকেটাররাও।

হারমানপ্রীতের এমন আচরণে বিব্রত ভারতের ক্রিকেট বোর্ডও (বিসিসিাই)। যে কারণে ঘটনা সম্পর্কে বিস্তারিত শুনতে তাকে তলব করেছে বিসিসিআই।

বৃহস্পতিবার (২৭ জুলাই) বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বোর্ড সেক্রেটারি জয় শাহ।

জয় বলেন, ‘তার সঙ্গে (আচরণগত কারণে) কথা বলতে চেয়েছেন আমাদের প্রেসিডেন্ট রজার বিন্নি ও ভিভিএস লক্ষ্মণ। আইসিসি এরই মধ্যে থাকে নিষিদ্ধ করেছে এবং সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আপিলের সময়ও শেষ হয়ে গেছে।’

ঘটনাটি ঘটে গত শনিবার (২২ জুলাই) শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামে বাংলাদেশ ও ভারতের নারীদের মধ্যকার তৃতীয় ওয়ানডের ৩৪তম ওভারে। লেগ বিফোর আউটের সিদ্ধান্ত দেওয়ার পর ফিল্ড আম্পায়ার তানভীর আহমেদের প্রতি অশোভন ও দৃষ্টিকটু আচরণ করেন হারমানপ্রীত।

প্রথমে আম্পায়ারের দিকে রাগান্বিত ভঙ্গিতে তাকে তাকিয়ে থাকতে দেখা যায়। এরপর রাগ চেপে রাখতে না পেরে সজোরে ব্যাট দিয়ে স্ট্যাম্প ভাঙেন ভারতীয় দলপতি। মাঠ ছাড়ার সময়ও আম্পায়ারের উদ্দেশে তাকে কিছু বলতে দেখা যায়। পরে পুরস্কার বিতরণীতে সরাসরি আম্পায়ারিং নিয়েই প্রশ্ন তোলেন।

শুধু তাই নয়, ম্যাচের পর বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের কটাক্ষ করতেও বিন্দুমাত্র পিছপা হননি তিনি।

ট্রফি নিয়ে ছবি তোলার সময়ে বাংলাদেশ অধিনায়ক নিগার সুলতানার উদ্দেশে হারমানপ্রীত বলেন, শুধু তোমরা কেন, আম্পায়ার তোমাদের ম্যাচ টাই করিয়েছে। আম্পায়ারকেও ডাকো। একসঙ্গে ছবি তুলি।

এই ঘটনার প্রেক্ষিতে ম্যাচের পরদিন তাকে জরিমানা ও চার ডেমেরিট পয়েন্ট দেয়া হয় শাস্তিস্বরূপ। এরপর গত মঙ্গলবার (২৫ জুলাই) দুই ম্যাচের নিষেধাজ্ঞা নেমে আসে তার ওপর।

 

সব খবর